ধর্মোপদেশ ধারাবাহিকঃ প্রকৃত বিশ্বাসের সন্ধানে | অবতারত্ব কী?

05-07-2022

দুহাজার বছর আগে, যখন প্রভু যীশু ধর্মপ্রচার ও কাজ করতে আসেন, প্রধান পুরোহিত, করণিক এবং ফ রীশীরা তাঁকে একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে চিহ্নিত করেছিল। প্রভু যীশুকে প্রতিরোধ, নিন্দা এবং কটুবাক্য বলার জন্য যা করা সম্ভব তারা করেছিল এবং অবশেষে তাঁকে ক্রুশবিদ্ধ করে এক ভয়ঙ্কর অপরাধ করে । সর্বশক্তিমান ঈশ্বর মনুষ্যপুত্র রূপে আবির্ভূত হয়েছেন ও কাজ করছেন, তবু এখনো অনেকে আছে যারা ঈশ্বরের অবতারকে যথেষ্ট জানে না, সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের সঙ্গে সাধারণ মানুষের মতো আচরণ করে, সত্য পথের সন্ধান করতে রাজি হয় না, এবং উন্মাদের ন্যায় সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের নিন্দা ও প্রতিরোধ করে, এবং এর মাধ্যমে তারা ঈশ্বরকে পুনরায় ক্রুশবিদ্ধ করার অপরাধ করে। কেন ঈশ্বরের দুজন অবতারই মানুষের দ্বারা নিন্দিত আর প্রত্যাখ্যাত হল? কারণ মানুষের ঈশ্বর জ্ঞান সীমিত, বোঝে না সত্য কী এবং অবতারত্বের মহারহস্য তো আরো কম জানে। তাহলে অবতারত্ব কী? কীভাবে আমরা অবতারত্বকে বুঝব? প্রকৃত বিশ্বাসের সন্ধানের এই পর্বে আমরা অবতারত্বের রহস্য বোঝার জন্য সমবেতভাবে সত্য সন্ধান করব।

আরও দেখুন

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? অনুগ্রহ করে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। 😊

শেয়ার করুন

বাতিল করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন