নোহের সময় ফিরে এসেছে | Prophecies About the Disasters of the Last Days Have Been Fulfilled

21-05-2022

নোহের যুগের মানবজাতির দিকে ফিরে দেখা যাক। মানুষ অনুতাপের কথা না ভেবে সবরকম অশুভ কার্যে লিপ্ত ছিল। কেউ ঈশ্বরের বাক্য শোনেনি। তাদের অনড় ও অশুভ মনোভাব ঈশ্বরের ক্রোধকে জাগ্রত করে ও পরিশেষে মহাপ্লাবনের দুর্যোগ তাদের গ্রাস করে। শুধুমাত্র ৮ জন সদস্যবিশিষ্ট নোহের পরিবার ঈশ্বরের বাক্য শোনে ও রক্ষা পায়। এখন অন্তিম সময় এসে গেছে। মানুষের দুর্নীতি গভীর থেকে গভীরতর হচ্ছে। প্রত্যেকে অশুভের উপাসক। সমগ্র ধর্মজগৎ দুনিয়ার গড্ডলিকা প্রবাহের অনুসারী। তারা সত্যকে এতটুকুও ভালোবাসে না। নোহের দিন এসে গেছে! মানুষকে রক্ষা করতে ঈশ্বর পুনরায় বিচারকার্য সমাধা করতে মানবজাতির মধ্যে আবির্ভূত হয়েছেন। এই শেষবার ঈশ্বর মানুষকে বাঁচাবেন। মানুষের কী চয়ন করা উচিত?

এটি একটি সত্য কাহিনি। যেহেতু সিচুয়ান প্রদেশের কুইংপিং কাউন্টির নাগরিকেরা সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের রাজত্বের সুসমাচারকে গ্রাহ্য করতে অসম্মত হয়েছে, তারা দুবার দুর্যোগ কবলিত হয়েছে। সিচুয়ানের ভয়াল ভূকম্পনের সময় বহু ভাই ও ভগিনী, যারা সর্বশক্তিমান ঈশ্বরে বিশ্বাস করে তারা অলৌকিকভাবে ঈশ্বরের দ্বারা সুরক্ষিত হয়েছে এবং বেঁচে গেছে। এই সত্য পরিলক্ষিত হয়েছে – যারা ঈশ্বরকে স্বীকার করে ও তাঁর বাধ্য এবং যারা ঈশ্বরকে অস্বীকার ও প্রতিরোধ করে, এই দুই ধরণের মানুষের পরিণতি ভিন্ন হয়!

আরও দেখুন

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? অনুগ্রহ করে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। 😊

শেয়ার করুন

বাতিল করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন