অধ্যায় ৯৫

মানুষ ভাবে সবকিছুই বুঝি অতি সহজ, যখন ঘটনাটা আসলে তা নয়। আমার প্রজ্ঞা ও আমার বন্দোবস্ত সহ সবকিছুর মধ্যেই প্রচ্ছন্ন রহস্য রয়েছে। কোনো খুঁটিনাটি বিষয়কেই উপেক্ষা করা হয় না এবং সবকিছুই আমার দ্বারা আয়োজিত। আমাকে যারা আন্তরিকভাবে ভালোবাসে না সেই মহান দিনের বিচার তাদের সকলের উপর নেমে আসবে (মনে রেখো, এই নাম যারা গ্রহণ করেছে তাদের প্রত্যেকেই এই বিচারের লক্ষ্য) এবং তাদের চোখের জল ফেলতে ও দাঁতে দাঁত ঘষতে বাধ্য করবে। মৃতস্থান ও নরক থেকে এই বিলাপের আওয়াজ আসে; এটা মানুষের কান্নার শব্দ নয়, বরং দানবদের। আমার বিচারই এই কান্না নিয়ে আসে, আমার বিচারই মানুষের জন্য আমার পরিচালনামূলক পরিকল্পনার চূড়ান্ত পরিত্রাণ বয়ে আনে। কিছু মানুষের কাছে আমি কিছু আশা পোষণ করতাম। কিন্তু এখন দেখছি যে, এই সমস্ত মানুষদেরই আমাকে একে একে পরিত্যাগ করতে হবে, কারণ আমার কার্য এখন এই পর্যায়ে উপনীত হয়েছে, এবং কেউই এর পরিবর্তন করতে পারবে না। যারা আমার প্রথমজাত পুত্র বা আমার লোক নয় তারা পরিত্যক্ত হবেই এবং আমার কাছ থেকে তাদের সরে যেতেই হবে! তোমাদের এটা বুঝতেই হবে যে, চিনে, আমার প্রথমজাত পুত্রগণ ও আমার লোকেদের বাদ দিয়ে, বাকি সকলেই অতিকায় লাল ড্রাগনের সন্তানসন্ততি এবং তাদের বর্জন করতে হবে। তোমাদের সকলকে অবশ্যই উপলব্ধি করতে হবে যে, শেষ বিচারে চিন আমার দ্বারা অভিশপ্ত এক দেশ, এবং সেখানে আমার কতিপয় লোকজন আমার ভবিষ্যৎ কার্যে নিয়োজিত সেবা-প্রদানকারীর অতিরিক্ত আর কিছু নয়। অন্যভাবে বললে, আমার প্রথমজাত পুত্ররা ব্যতীত সেখানে আর কেউ নেই—তারা সবাই ধ্বংস হবে। একথা ভেবো না যে আমার ক্রিয়াকর্মে আমি খুবই চরমপন্থী—এটা আমার প্রশাসনিক ফরমান। যারা আমার অভিশাপ ভোগ করে তারা আমার ঘৃণার লক্ষ্যবস্তু, এবং তা অমোঘ। আমি কোনো ভুল করি না, আমি যদি দেখি যে কেউ আমাকে অসন্তুষ্ট করছে, তবে আমি তাদের পদাঘাতে বিতাড়ন করব; এটাই পর্যাপ্ত প্রমাণ যে তুমি আমার দ্বারা অভিশপ্ত এবং তুমি অতিকায় লাল ড্রাগনের এক বংশধর। আমি তোমাকে পুনরায় মনে করিয়ে দিই যে—চিনে শুধুমাত্র আমার প্রথমজাত পুত্ররা রয়েছে (এছাড়া আমার লোকরা রয়েছে যারা সেবা প্রদান করে) এবং এটা আমার প্রশাসনিক ফরমান। কিন্তু আমার প্রথমজাত পুত্ররা অতি মুষ্টিমেয় এবং তারা সকলেই আমার দ্বারা পূর্বনির্ধারিত—আমি কী করছি তা আমি জানি। আমি তোমার নেতিবাচকতাকে ভয় পাই না এবং আমি এই ভেবেও ভীত নই যে তুমি ঘুরে দাঁড়িয়ে আমাকে দংশন করবে, কারণ আমার প্রশাসনিক ফরমানসমূহ রয়েছে এবং আমার ক্রোধ রয়েছে। অর্থাৎ, বড় বড় বিপর্যয়গুলিকে আমি আমার হস্তে ধারণ করি এবং কোনো কিছুকেই আমি ভয় পাই না, কারণ সবকিছুই আমি ইতিমধ্যেই অর্জিত হয়ে গেছে বলে গণ্য করি, এবং সেইদিন যখন আসবে তখন পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে আমি তোমার মোকাবিলা করব। কেউই মানুষের দ্বারা নিখুঁত ও সংশোধিত হয়ে আমার প্রথমজাত পুত্রে পরিণত হতে পারে না—এই বিষয়টি সম্পূর্ণভাবেই আমার পূর্বনির্ধারণের উপর নির্ভর করে। আমি যাকে প্রথমজাত পুত্র বলি সেই প্রথমজাত পুত্র; এর জন্য রেষারেষি করতে বা গায়ের জোরে একে দখল করতে যেয়ো না। সব বিষয়ই আমার উপর, স্বয়ং সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের উপর নির্ভরশীল।

আমার প্রশাসনিক ফরমানসমূহ কী এবং আমার ক্রোধ কী তা একদিন আমি তোমাদের সকলকে চাক্ষুষ করার সুযোগ দেব (সকলে আমার সামনে নতজানু হবে, সকলে আমার উপাসনা করবে, সকলে আমার কাছে ক্ষমা ভিক্ষা করবে এবং সকলেই আজ্ঞাবহ হবে; এখন আমি শুধুমাত্র আমার প্রথমজাত পুত্রদের এর একটা অংশ চাক্ষুষ করার অনুমতি দেব)। অতিকায় লাল ড্রাগনের সকল সন্তানসন্ততিদের আমি এটা দেখতে বাধ্য করব যে আমার প্রথমজাত পুত্রদের নিখুঁত করার জন্য আমি অনেককে বলিপ্রদানের জন্য নির্বাচিত করেছি (আমার প্রথমজাত পুত্ররা ব্যতীত প্রত্যেককে), এবং তাদের দেখবো যে অতিকায় লাল ড্রাগনকে আমি তার নিজেরই ধূর্ত ষড়যন্ত্রের শিকারে পরিণত হতে বাধ্য করেছি। (আমার পরিচালনালূক পরিকল্পনায়, যারা আমার নিমিত্ত সেবা প্রদান করে অতিকায় লাল ড্রাগনই তাদের প্রেরণ করে—আমার প্রথমজাত পুত্ররা ব্যতীত আর সকলকেই সে প্রেরণ করে—আমার পরিচালনামূলক পরিকল্পনায় ব্যাঘাত ঘটানোর জন্য; কিন্তু তা সত্ত্বেও সে তার নিজেরই ধূর্ত অভিসন্ধির শিকারে পরিণত হয়েছে, এবং তার প্রেরিত ব্যক্তিরা সকলে আমার কার্যের প্রতি সেবা প্রদান করে। আমার নিমিত্ত সেবা প্রদানের জন্য সকলকে সংগঠিত করার প্রকৃত অর্থের এটা অংশবিশেষ।) আজ, যখন সমস্ত কিছু অর্জিত হয়েছে, আমি এখন তাদের সকলকে পরিত্যাগ করব, আমায় পায়ের তলায় গুঁড়িয়ে দেব, এবং এর মাধ্যমে অতিকায় লাল ড্রাগনকে আমি অসম্মানিত করব এবং তাকে চূড়ান্ত রকমের লজ্জিত করব (চাতুরীর মাধ্যমে তারা আশীর্বাদ লাভের পথ উন্মুক্ত করার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু তারা কখনোই ভাবেনি যে তারা আমার জন্য সেবা প্রদান করবে)—এটাই আমার প্রজ্ঞা। এটা শুনে মানুষ ভাবে যে আমি বুঝি অনুভূতিশূন্য বা নিষ্করুণ, এবং আমার আমার কোনো মানবিকতা নেই। আমি সত্যিই শয়তানের প্রতি অনুভূতি বা করুণা বিরহিত, এবং তদুপরি আমিই সেই স্বয়ং ঈশ্বর যিনি মানবতার সীমা ছাপিয়ে যান। কেমন করে তুমি বলতে পারো যে আমি মানবতাযুক্ত এক ঈশ্বর? তুমি কি জানো না যে আমি এই পৃথিবীর নই? তুমি কি জানো না যে আমি সকলকিছুর ঊর্ধ্বে? আমার প্রথমজাত পুত্ররা ব্যতীত, কেউই আমার মতো নয়, কারোর মধ্যেই আমার স্বভাব নেই (সেই স্বভাব যা মানবিক নয়, বরং দৈবিক), এবং এমন কেউ নেই যে আমার গুণাবলীর অধিকারী।

আধ্যাত্মিক জগতের দ্বার যখন খুলে যাবে, তখন তোমরা সমস্ত রহস্য চাক্ষুষ করবে, যা তোমাদের এক মুক্তলোকে, আমার মমতাময় আলিঙ্গনের মধ্যে এবং আমার চিরস্থায়ী আশীর্বাদের মাঝে সর্বাঙ্গীন প্রবেশে সমর্থ করে তুলবে। আমার হস্ত সর্বদাই মানবজাতিকে অবলম্বন জুগিয়েছে। কিন্তু মানবজাতির একটা অংশকে আমি উদ্ধার করব এবং অন্য একটা অংশ রয়েছে যাকে আমি উদ্ধার করব না। (আমি “অবলম্বন” এর কথা বলছি কারণ আমার অবলম্বন না পেলে সমগ্র পৃথিবী দীর্ঘদিন আগেই মৃতস্থানে পতিত হত।) এটা বোঝার চেষ্টা করো! এটাই আমার পরিচালনামূলক পরিকল্পনা। এবং আমার পরিচালনামূলক পরিকল্পনাটা কী? মানবজাতিকে আমি সৃষ্টি করেছিলাম, কিন্তু আমি কখনোই প্রত্যেক ব্যক্তিকে অর্জনের পরিকল্পনা করি নি, মানবজাতির কেবল একটা ক্ষুদ্র অংশকে অর্জনের পরিকল্পনা করেছিলাম। তাহলে এত মানুষ আমি সৃষ্টি করেছিলাম কেন? আর আগে আমি বলেছি যে, আমাতে, সবকিছুই স্বাধীনতা ও মুক্তি, এবং আমার যা ইচ্ছে আমি তাই করি। আমি শুধু এই কারণেই মানবজাতি সৃষ্টি করেছিলাম, যাতে তারা একটা স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারে এবং তারপর মানবজাতির মধ্য থেকে একটা ক্ষুদ্র অংশ উঠে আসতে পারে যারা হবে আমার প্রথমজাত পুত্র, আমার পুত্র ও আমার লোক। একথা বলা যেতে পারে যে সকল মানুষ, ঘটনাসমূহ, এবং বস্তুসকল—কেবল আমার প্রথমজাত পুত্রগণ, আমার লোক, ও আমার পুত্রগণ বাদে—সকলেই সেবা-প্রদানকারী এবং তারা সকলে ধ্বংস হবেই। এই ভাবেই, আমার সমগ্র পরিচালনামূলক পরিকল্পনা সমাপ্ত হবে। এটাই আমার পরিচালনামূলক পরিকল্পনা, এটাই আমার কার্য এবং এই ধাপগুলির মাধ্যমেই আমি কার্যসাধন করি। যখন সবকিছু সম্পন্ন হবে তখন আমি সম্পূর্ণ বিশ্রামে যাব। তখন সবকিছুই সুন্দর হবে, সবকিছুই শান্তিপূর্ণ ও নিরাপদ হবে।

আমার কাজের গতি এতই দ্রুত যে তা মানুষের কল্পনাতীত। এটা দিন দিন পরিবর্তিত হয় এবং যে এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারবে না তাকে ক্ষতিস্বীকার করতে হবে; মানুষ কেবল প্রতিদিন নতুন আলোকে আঁকড়ে ধরে থাকতে পারে (যদিও আমার প্রশাসনিক ফরমানসমূহে এবং যে দর্শন ও সত্যের বিষয়ে আমি আলাপ-আলোচনা করি তাতে কখনো কোনো পরিবর্তন ঘটে নি)। আমি কেন প্রতিদিন বাক্য উচ্চারণ করি? আমি কেন নিরন্তর তোমার আলোকপ্রাপ্তি ঘটাই? তুমি কি তোমার অন্তরে প্রকৃত অর্থ উপলব্ধি করো? বেশিরভাগ মানুষ এখনও হাসাহাসি করছে, ঠাট্টাতামাশা করছে, তারা চিন্তাশীল হতে পারে না। তারা আমার বাক্যগুলির প্রতি আদৌ কোনো মনোযোগ দেয় না, শুধু সেগুলি যখন শোনে তখন একটা সাময়িক উদ্বেগ বোধ করে। পরে, আমার বাক্যগুলি তারা অচিরাৎ ভুলে যায় এবং সত্বর তারা নিজেদের পরিচয় সম্পর্কেই অবিদিত এবং অসতর্ক হয়ে পড়ে। তুমি কি জানো তোমার অবস্থান কী? কেউ আমার জন্য সেবা প্রদান করবে, নাকি সে আমার দ্বারা পূর্বনির্দিষ্ট ও মনোনীত হবে তা একমাত্র আমার হস্ত দ্বারা পরিচালিত হয়; কেউ তার পরিবর্তন করতে পারে না—আমাকে স্বয়ং একাজ করতে হবে, আমাকে স্বয়ং তাদের নির্বাচন ও পূর্ববিহিত করতে হবে। কে একথা বলার স্পর্ধা করে যে আমি অপরিণামদর্শী ঈশ্বর? যে যে বাক্য আমি উচ্চারণ করি এবং যা কিছু আমি সম্পন্ন করি তা-ই আমার প্রজ্ঞা। কে পুনরায় আমার ব্যবস্থাপনায় ব্যাঘাত ঘটানোর বা আমার পরিকল্পনাগুলোকে বানচাল করার দুঃসাহস করে? আমি নিশ্চিতভাবেই তাদের ক্ষমা করব না! সময় আমার মুষ্ঠিতে ধৃত এবং তাই কালবিলম্বকে আমি ভয় পাই না; আমিই কি সেইজন নই যিনি আমার পরিচালনামূলক পরিকল্পনার সমাপ্তইক্ষণ নির্ধারণ করেন? এই সমস্তকিছুই কি আমার একটিমাত্র চিন্তাভাবনার উপর নির্ভরশীল নয়? আমি যখন বলব তা সম্পন্ন হয়েছে, তখন তা সম্পন্ন, আমি যখন বলব তা শেষ হয়েছে, তখন তা সমাপ্ত। আমার কোনো তাড়া নেই এবং আমি উপযুক্ত বন্দোবস্ত করব। মানুষের আমার কাজে কোনোক্রমেই নাক গলানো চলবে না এবং আমার নিমিত্ত তাদের যেভাবে ইচ্ছা সেভাবে কাজকর্ম করলে চলবে না। যেই নাক গলাবে আমি তাকে অভিশাপ দেব—এটা আমার প্রশাসনিক ফরমানসমূহের অন্যতম। আমি স্বয়ং আমার কার্য সমাধা করি এবং আমার আর কাউকেই লাগবে না (আমি সেই সেবা-প্রদানকারীদের ক্রিয়াকর্ম সম্পাদনের অনুমতি দিই, অন্যথায় তারা হঠকারী ভাবে বা অন্ধের মতো কাজ করার সাহস পাবে না)। সব কার্যই আমার দ্বারা আয়োজিত, এবং আমার দ্বারা নির্ধারিত, কারণ আমিই স্বয়ং একমাত্র ঈশ্বর।

ক্ষমতা ও মুনাফার জন্য বিশ্বের সমস্ত দেশ একে অপরের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে, এবং ভূখণ্ডের জন্য লড়াই করছে, কিন্তু আশঙ্কিত হয়ো না, কারণ এই সকল বিষয়ই আমার সেবায় লাগছে। এবং কেন আমি বলি যে এগুলি আমার সেবায় নিয়োজিত? আমি অঙ্গুলি হেলন না করেই কার্য সমাধা করি। শয়তানদের বিচার করার জন্য, আমি প্রথমে তাদের নিজেদের মধ্যে বিবাদে জড়িয়ে দিই এবং পরিশেষে তাদের ধ্বংসের সম্মুখীন করি এবং তাদের নিজেদের ধূর্ত অভিসন্ধির জালেই তাদের শিকার করি (ক্ষমতার জন্য তারা আমার সঙ্গে পাল্লা দিতে চায়, কিন্তু শেষপর্যন্ত তারা আমার উদ্দেশ্যে সেবা প্রদান করে)। আমি শুধু বাক্য উচ্চারণ করি এবং আমার নির্দেশ দিই, এবং যাকে যা করতে বলি প্রত্যেকে তা করে, অন্যথায়, মুহূর্তের মধ্যে আমি তোমায় বিনষ্ট করব। এই সমস্ত বিষয়গুলো আমার বিচারের একটা অংশ মাত্র, কারণ আমি সমস্তকিছুকে পরিচালনা করি, এবং সকল কিছু আমার দ্বারা অভিষিক্ত হয়। কেউ যা করে সে তা অনৈচ্ছিকভাবেই করে, সে তা আমার নিজস্ব আয়োজন অনুযায়ী করে। আমি আশা করি যে শীঘ্রই যে ঘটনাগুলো ঘটতে চলেছে তাদের মাধ্যমে তোমরা আমার প্রজ্ঞার দ্বারা পূর্ণ হবে। কোনো বেপরোয়া কার্যনীতি গ্রহণ কোরো না, বরং ঘটনাসমূহ যখন তোমাদের উপর বর্ষিত হবে তখন আরো ঘন ঘন আমার সান্নিধ্যে এসো; আমার শাস্তির অবমাননা এড়াতে, এবং শয়তানের ধূর্ত অভিসন্ধির শিকারে পরিণত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পেতে, যাবতীয় বিষয়ে আরো যত্নবান ও সতর্ক হও। আমার বাক্যগুলি থেকে তোমাদের অন্তর্দৃষ্টি অর্জন করতে হবে, আমি যা সেটা জানতে হবে, এবং আমার যা আছে তা প্রত্যক্ষ করতে হবে। তোমাদের অবশ্যই আমার অর্থপূর্ণ চাহনি অনুসারে কার্যাদি সম্পন্ন করতে হবে, এবং কদাপি তোমরা বেপরোয়া আচরণ করবে না। আমি যে কার্য করি তা-ই সম্পন্ন করো, এবং যে বাক্য বলি সেকথা-ই বলো। আমি এই বিষয়গুলি তোমাদের আগাম বলি যাতে তোমরা ভুল এড়াতে পারো এবং যাতে তোমরা প্রলুব্ধ না হও। “আমার সত্তা” এবং “আমার সম্পদসমূহ” কী কী? তোমরা কি প্রকৃতই তা জানো? যে যন্ত্রণা আমি ভোগ করি তা সত্তার একটা অংশ, কারণ তা আমার স্বাভাবিক মানবতার একটা অংশ, এবং আমার সম্পূর্ণ দেবত্বের মধ্যেও আমার সত্তাকে খুঁজে পাওয়া যাবে—তোমরা কি এটা জানো? দুটি দিক নিয়ে আমার সত্তা গঠিত: একটি হল আমার মানবতার দিক, আর অন্যটি হল আমার সম্পূর্ণ দেবত্বের দিক। কেবল এই দুটি দিকই একত্রে সম্পূর্ণ স্বয়ং ঈশ্বরকে গড়ে তোলে। যা আমার সম্পূর্ণ দেবত্ব তার মধ্যেও অনেক বিষয় রয়েছে: আমি কোনো ব্যক্তি, বিষয় বা বস্তুর দ্বারা সংবৃত হই না; আমি সমস্ত পরিবেশকে অতিক্রম করে যাই, আমি যেকোনো স্থানগত, কালগত বা ভৌগোলিক বিধিনিষেধের ঊর্ধ্বে, সকল মানুষ, বিষয় ও বস্তুকে আমি প্রকৃত অর্থে, নিজের হাতের তালুর মতোই, জানি; এবং তা সত্ত্বেও আমি এখনও অস্থি-মাংস নির্মিত সত্তা, এবং আমি এক স্পর্শগ্রাহ্যরূপে বিরাজ করি; মানুষের চোখে আমি এখনো এই সত্তা, কিন্তু এর প্রকৃতি পরিবর্তিত হয়েছে—এটা মাংস নয়, বরং শরীর। এই বিষয়গুলো এর শুধুমাত্র ক্ষুদ্র একটা অংশ। আমার সকল প্রথমজাত পুত্ররাও ভবিষ্যতে এরূপই হবে; এটাই সেই পথ যেপথে পদক্ষেপ করতেই হবে, এবং যারা অভিশপ্ত তারা পালিয়ে বাঁচতে পারবে না। আমার এই কার্যগুলি সম্পাদন করাকালীন যারা পূর্ববিহিত নয় তারা বিতাড়িত হবে (কারণ আমার বাক্যগুলি খাঁটি কিনা সেটা দেখার জন্য শয়তান আমার এই পরীক্ষা নিচ্ছে)। যারা পূর্বনির্দিষ্ট তারা যেখানেই যাক কেন এর হাত থেকে রেহাই পাবে না, এবং এর মাধ্যমে তোমরা আমার এই কার্যের নেপথ্যে নিহিত নীতিসমূহকে চাক্ষুষ করবে। “আমার সম্পদসমূহ” বলতে আমার প্রজ্ঞা, আমার জ্ঞান, আমার অপর্যাপ্ততা এবং আমার দ্বারা উচ্চারিত প্রতিটি বাক্যকে বোঝায়। আমার মানবতা ও দেবত্ব উভয়েই এর অধিকারী। অর্থাৎ, যা কিছু আমার মানবতার দ্বারা সাধিত হয় এবং সেইসঙ্গে যা কিছু আমার দেবত্বের দ্বারা সম্পাদিত হয় সেই সবই আমার সম্পদসমূহ; কেউই এই বস্তুগুলি কেড়ে নিতে বা সরিয়ে ফেলতে পারে না; এগুলি আমার অধিকারে রয়েছে, এবং কেউই এগুলির পরিবর্তন করতে পারে না। এ হল আমার কঠোরতম প্রশাসনিক ফরমান (কারণ মানুষের পূর্বধারণায়, অনেক কিছুই আমি করি তা তাদের ধারণাসমূহের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয় এবং তা মানুষের উপলব্ধির অতীত; এটাই সেই ফরমান যেটা প্রত্যেক ব্যক্তি সবচেয়ে সহজে অবমাননা করে এবং এটা সবচেয়ে কঠোরও বটে। সে কারণেই তাদের জীবন ক্ষতির সম্মুখীন হয়)। আমি পুনরায় বলছি, আমি তোমাদের যা করার উপদেশ দেব তার প্রতি তোমাদের একটা বিবেকবুদ্ধিসম্মত দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করতেই হবে—তোমাদের অমনোযোগী হওয়া চলবে না!

পূর্ববর্তী: অধ্যায় ৯৪

পরবর্তী: অধ্যায় ৯৬

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? শিখতে আমাদের ফেলোশিপে যোগ দিন। কোন ফি লাগবে না।👇

সম্পর্কিত তথ্য

ঈশ্বরের সঙ্গে সহজ সম্পর্ক স্থাপন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

যে পথে মানুষ ঈশ্বরকে বিশ্বাস করে, ভালোবাসে এবং ঈশ্বরের আস্থাভাজন হয়ে ওঠে, সেই পথটি হল নিজের হৃদয়ে ঈশ্বরের পরম শক্তিকে স্থান দিয়ে তাঁর...

পরিশিষ্ট ২ ঈশ্বর সমগ্র মানবজাতির ভাগ্য নির্ধারক

মানব প্রজাতির সদস্য এবং ধর্মপ্রাণ খ্রীষ্টান হিসাবে আমাদের সকলের দায়িত্ব এবং কর্তব্য হলো নিজেদের দেহ ও মনকে ঈশ্বরের অর্পিত দায়িত্বে নিযুক্ত...

একটি সাধারণ আধ্যাত্মিক জীবন মানুষকে সঠিক পথে নিয়ে যায়

তোমরা ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাসের পথে খুব সামান্য অংশই হেঁটেছো, এবং তোমরা এখনও সঠিক পথে প্রবেশ করতে পারোনি, তাই তোমরা এখনও ঈশ্বরের নির্ধারিত...

সেটিংস

  • লেখা
  • থিমগুলি

ঘন রং

থিমগুলি

ফন্টগুলি

ফন্ট সাইজ

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

পৃষ্ঠার প্রস্থ

বিষয়বস্তু

অনুসন্ধান করুন

  • এই লেখাটি অনুসন্ধান করুন
  • এই বইটি অনুসন্ধান করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন