অধ্যায় ৯০

যারা অন্ধ আমার কাছ থেকে তাদের চলে যেতেই হবে এবং তাদের আর এক মুহূর্তও থাকা চলবে না, কারণ আমি তাদেরই চাই যারা আমাকে জানতে পারবে, যারা আমাকে দেখতে পারবে এবং যারা আমার কাছ থেকে সকলকিছু অর্জন করতে পারবে। এবং কারা আমার নিকট থেকে প্রকৃত অর্থেই সকলকিছু অর্জন করতে পারে? নিশ্চয়ই এই ধরনের খুব অল্পসংখ্যক মানুষ রয়েছে এবং তারা অবশ্যই আমার আশীর্বাদ লাভ করবে। এই ধরনের মানুষদের আমি ভালোবাসি এবং আমার দক্ষিণ হস্ত এবং আমার প্রকাশ হয়ে ওঠার জন্য তাদের আমি একে একে বেছে নেব। আমি সকল দেশ ও সমস্ত মানুষকে দিয়ে বিরামহীনভাবে আমার স্তুতি করাব, এই সকল মানুষের জন্য হর্ষধ্বনি করাব, করিয়েই যাব। হে সিয়োন পর্বত! বিজয়ের ধ্বজা তুলে ধরো এবং আমার জন্য হর্ষে মেতে ওঠো! কারণ আমি বিশ্বচরাচরে এবং পৃথিবীর শেষ প্রান্তে যাতায়াত করি, এখানে আরো একবার প্রত্যাবর্তনের পূর্বে পর্বতমালা, নদনদী এবং সমস্ত কিছুর প্রতিটি কোণে পদচারণা করি। বিজয়ী হয়ে আমি ন্যায়পরায়ণতা, বিচার, ক্রোধ ও দহন নিয়ে ফিরি, এমনকি তার চেয়েও বড় কথা, আমার প্রথমজাত পুত্রদের সঙ্গে নিয়ে প্রত্যাবর্তন করি। যে সমস্ত কিছু আমি অপছন্দ করি এবং যে সকল মানুষ, বিষয়সমূহ ও বস্তুগুলিকে আমি ঘৃণা করি সেগুলিকে বহু দূরে নিক্ষেপ করি। আমি বিজয়ী এবং যা কিছু করতে চেয়েছি তার সমস্তকিছুই সম্পূর্ণ করেছি। কে একথা বলার সাহস করে যে আমি আমার কাজ সম্পূর্ণ করিনি? কে একথা বলার সাহস করে যে আমি আমার প্রথমজাত পুত্রদের অর্জন করিনি? কে একথা বলার সাহস করে যে আমি বিজয়ী হয়ে প্রত্যাবর্তন করিনি? এই ধরনের লোকেরা অবশ্যই শয়তানের স্বজাতি; তারা সেইসব ব্যক্তি যাদের পক্ষে আমার ক্ষমা অর্জন করা অত্যন্ত কঠিন। তারা অন্ধ, তারা কলুষিত দানব এবং তাদের সবচেয়ে বেশি ঘৃণা করি। এই সকল বস্তুর উপর আমি আমার ক্রোধ এবং আমার বিচারের সমগ্রতার প্রকাশ ঘটাতে শুরু করব, এবং এবং আমার জ্বলন্ত অগ্নির মাধ্যমে এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ড এবং পৃথিবীর শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রজ্জ্বলিত করব, প্রতিটি কোণকে আলোকিত করব—এটাই আমার প্রশাসনিক ফরমান।

তোমরা একবার আমার বাক্যগুলিকে উপলব্ধি করার পর, তোমাদের সেগুলি থেকে সান্ত্বনা খুঁজে নেওয়া উচিত; সেগুলি যেন তোমাদের দ্বারা উপক্ষিত হয়ে চলে না যায়। বিচারের কথনগুলি প্রতিদিনই নেমে আসে, তবু তোমরা কেন এত স্থূলবুদ্ধিসম্পন্ন এবং অসাড়? তোমরা কেন আমার সঙ্গে সহযোগিতা করো না? নরকে যেতে তোমরা কেন এত উৎসুক? আমি বলেছি যে আমার প্রথমজাত পুত্র, আমার পুত্র ও আমার লোকদের কাছে আমি ক্ষমাময় ঈশ্বর, তাই তোমরা তা কীভাবে উপলব্ধি করো? এটা কোনো সহজ, সাধারণ বিবৃতি নয়, এবং একটি ইতিবাচক দৃষ্টিকোণ থেকে একে উপলব্ধি করা উচিত। হে, অন্ধ মানবজাতি! আমি তোমাদের বহুবার উদ্ধার করেছি, শয়তানের কবল থেকে এবং শাস্তির হাত থেকে রক্ষা করেছি যাতে তোমরা আমার প্রতিশ্রুতি লাভ করতে পারো, তাই আমার হৃদয়ের প্রতি কেন তোমরা কোনো বিবেচনা দেখাও না? তোমাদের মধ্যে একজনও কি এই উপায়ে উদ্ধার পাবে? আমার ন্যায়পরায়ণতা, মহিমা ও বিচার শয়তানের প্রতি কোনো করুণা প্রদর্শন করে না। কিন্তু তোমাদের প্রশ্ন যেখানে জড়িত সেখানে এই সকল বিষয়ের লক্ষ্য হল তোমাদের উদ্ধার করা, কিন্তু তা সত্ত্বেও তোমরা আমার স্বভাবকে উপলব্ধি করতে অক্ষম, এবং আমার কর্মগুলির নেপথ্যের নীতিসমূহও তোমরা জানো না। তোমরা মনে করো যে আমি আমার বিভিন্ন কর্মের তীব্রতার মধ্যে কোনো তারতম্য ঘটাই না, এবং আমার কর্মগুলির লক্ষ্যসমূহের মধ্যেও আমি কোনো তারতম্য ঘটাই না—কী অজ্ঞ! আমি সমস্ত মানুষ, ঘটনাবলী ও বস্তুসমূহ স্পষ্টভাবে দেখতে সক্ষম। আমি প্রত্যেক ব্যক্তির উপাদানকে সম্পূর্ণ স্বচ্ছতার সঙ্গে উপলব্ধি করি, অর্থাৎ, একজন মানুষ নিজের মধ্যে কোন কোন বিষয় পোষণ করে, তা আমি সম্পূর্ণ ভাবে অবলোকন করি। আমি স্পষ্ট ভাবে দেখি কোনো ব্যক্তি কুটিলা অথবা কুলটা কিনা, এবং আমি জানি গোপনে কে কী করে থাকে। আমার সম্মুখে তোমাদের মনোহারিতা জাহির কোরো না, তোমরা হতভাগ্য! এখনই এখান থেকে চলে যাও! আমি এই ধরনের ব্যক্তিকে কোনোভাবেই ব্যবহার করি না, যাতে আমার নামের উপর কলঙ্ক এড়ানো যায়! তারা আমার নামের সাক্ষ্য দিতে পারে না, এবং পরিবর্তে তার ঠিক বিপরীত আচরণ করে এবং আমার পরিবারকে কলঙ্কিত করে! তাদের অবিলম্বে আমার গৃহ থেকে বহিষ্কার করা হবে। আমি চাদের চাই না। আমি এমনকি এক লহমাও বিলম্ব সহ্য করব না! এই সকল মানুষের ক্ষেত্রে, তারা যেভাবেই অন্বেষণ করুক না কেন, সবই নিরর্থক, কারণ আমার রাজ্যে সকল কিছুই সমস্ত ভাবেই পবিত্র ও নিষ্কলঙ্ক। আমি যদি বলি যে আমি কাউকে চাই না—এবং তার মধ্যে আমার নিজের লোকও অন্তর্ভুক্ত থাকে—তাহলে আমি সেটাই বোঝাই; আমি আমার মনের পরিবর্তনের করব বলে অপেক্ষা কোরো না। তুমি পূর্বে আমার প্রতি কতটা সদাশয় ছিল তা নিয়ে আমি মাথা ঘামাই না!

প্রতিদিনই আমি তোমাদের কাছে রহস্যের প্রকাশ ঘটাই। তোমরা কি আমার উচ্চারণের পদ্ধতি জানো? কীসের ভিত্তিতে আমি আমি রহস্যগুলিকে প্রকাশ করি? তোমরা কি জানো? তোমরা প্রায়শই একথা বলো যে আমি সেই ঈশ্বর যিনি সঠিক সময়ে তোমাদের জন্য রসদ সরবরাহ করেন, তাহলে তোমরা কীভাবে এই দিকগুলি উপলব্ধি করো? আমার কাজের ধাপগুলির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণভাবে আমি একে একে তোমাদের কাছে আমার রহস্যগুলি প্রকাশ করি, এবং আমার পরিকল্পনার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণভাবে, এবং এমনকি আরো বেশি করে, তোমাদের প্রকৃত আত্মিক উচ্চতার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ ভাবে তোমাদের জন্য রসদ সরবরাহ করি (আমার ব্যবস্থার কথা যখনই উল্লেখ করা করা হয়, তখন রাজ্যের প্রতিটির ব্যক্তির সাপেক্ষে তা করা হয়)। আমার উচ্চারণের পদ্ধতি এইরূপই: আমার গৃহের মানুষদের আমি স্বাচ্ছন্দ্য দিই—আমি তাদের জন্য রসদ সরবরাহ করি এবং আমি তাদের বিচার করি; শয়তানকে আমি কোনোরকম করুণা প্রদর্শন করি না, এক কণাও নয়, এবং সমস্ত কিছুই ক্রোধ ও দহন। যাদের আমি পূর্বনির্ধারণ ও নির্বাচন করিনি, তাদের একে একে আমার গৃহ থেকে বহিষ্কারের জন্য আমি আমার প্রশাসনিক ফরমানসমূহকে ব্যবহার করব। উদ্বিগ্ন বোধ করার কোনো কারণ নেই। আমি তাদের দিয়ে তাদের নিজেদের প্রকৃত রূপ অনাবৃত করানোর পর (শেষের সময় ঘনিয়ে এলে, আমার পুত্রদের প্রতি তাদের সেবা প্রদানের পর), তারা অতল গহ্বরে প্রত্যাবর্তন করবে, অথবা আমি কখনোই এই বিষয়টিকে ধামাচাপা পড়তে দেব না, এবং আমি কখনোই এই বিষয়টিকে ছেড়ে দেব না। মানুষ প্রায়শই নরক ও মৃতস্থানের কথা উল্লেখ করে। কিন্তু এই দুটো শব্দ বলতে কী বোঝায়, এবং তাদের মধ্যে পার্থক্যটা কী? এগুলি কি প্রকৃতই কোনো শীতল ও অন্ধকার কোণকে বোঝায়? মানবমন সর্বদাই আমার ব্যবস্থাপনায় বাধা দেয়, ভাবে যে তাদের এলোমেলো ভাবনাচিন্তাগুলোই একদম যথার্থ! কিন্তু সেগুলো তাদের নিজস্ব কল্পনাসমূহ ব্যাতীত আর কিছুই নয়। মৃতস্থান ও নরক উভয়েই এমন এক আবিলতার মন্দিরকে বোঝায় যেখানে পূর্বে শয়তান বা দুষ্ট আত্মারা বাস করত। অর্থাৎ, যারাই পূর্বে শয়তান বা দুষ্ট আত্মাদের দ্বারা অধিকৃত ছিল—তারাই হল সেইসব ব্যক্তি যারা মৃতস্থান, এবং এরাই হল নরক—এখানে কোনো ভুল নেই! এই কারণেই আমি অতীতে এই বিষয়টির উপর বার বার জোর দিয়েছি যে আমি আবিলতার মন্দিরে বাস করি না। আমি কি (স্বয়ং ঈশ্বর) মৃতস্থানে, কিংবা নরকে বাস করতে পারি? সেটা কি হাস্যকর রকমের অর্থহীন হবে না? একথা আমি বেশ কয়েকবার বলেছি, কিন্তু আমি কী বলতে চাই তা এখনো তোমরা উপলব্ধি করো না। নরকের তুলনায় মৃতস্থান শয়তানের দ্বারা তীব্রতর ভাবে ভ্রষ্ট। যারা মৃতস্থানের জন্য নির্দিষ্ট তাদের অবস্থাই সবচেয়ে গুরুতর, আমি মোটেও এই ধরনের ব্যক্তিদের পূর্বনির্ধারণ করিনি; এবং যারা নরকের জন্য নির্দিষ্ট, তাদের আমি পূর্বনির্ধারণ করেছি, এবং তারপর বহিষ্কার করেছি। সহজভাবে বলতে গেলে, আমি এই ধরনের মানুষদের এমনকি একজনকেও নির্বাচন করিনি।

মানুষ ঘনঘন আমার বাক্যগুলিকে ভুল বোঝার ক্ষেত্রে নিজেদের বিশেষজ্ঞ বলে প্রমাণ করে। আমি যদি বিষয়গুলিকে স্পষ্টভাবে নির্দেশ ও সেগুলিকে তিল তিল করে স্পষ্ট না করি, তাহলে তোমাদের মধ্যে কে উপলব্ধি করবে? এমনকি যে বাক্যগুলি আমি উচ্চারণ করি তোমরা সেগুলোকেও শুধুমাত্র অর্ধেক বিশ্বাস করো, যে বিষয়গুলিকে পূর্বে উল্লেখ করা হয়নি, সেগুলির কথা তো বাদই দেওয়া দেওয়া গেল। এখন সমস্ত দেশের ভিতরে অভ্যন্তরীণ বিবাদ শুরু হয়েছে: শ্রমিকরা নেতাদের সঙ্গে বিবাদ করছে, শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের সঙ্গে, নাগরিকরা সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গে, এবং এই ধরনের সমস্ত কাজকর্ম যা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে তা প্রত্যেক দেশের অভ্যন্তরে জন্ম নেয়, এবং এর পুরোটাই আমার প্রতি প্রদত্ত সেবার নিছকই একটা অঙ্গ। এবং কেন আমি এমনটা বলছি যে এই বিষয়গুলির মাধ্যমে আমার প্রতি সেবা প্রদান করা হয়? মানুষের দুর্ভাগ্য দেখে কি আমি আনন্দ পাই? আমি কি সবকিছু উপেক্ষা করে বসে থাকি? অবশ্যই নয়! কারণ এ হল শয়তানের তার মৃত্যুযন্ত্রণায় ফুঁসে ওঠা, এই সমস্ত বিষয়ের উদ্দেশ্য হল নেতিবাচকতাকে এমন ভাবে ব্যবহার করা যে তার বিপরীতে আমার চমকপ্রদ কর্ম উজ্জ্বলতর রূপে ভাস্বর হয়। এই সকলই হল জোরালো প্রমাণ যা আমার সাক্ষ্য দেয়, এবং অস্ত্র যা দিয়ে শয়তানকে আক্রমন করা হয়। যখন বিশ্বের সব দেশ ভূখণ্ড ও প্রভাবের জন্য লড়াই করছে, তখন আমার প্রথমজাত পুত্ররা এবং আমি একসঙ্গে রাজা হয়ে রাজত্ব করি এবং তাদের মোকাবিলা করি, এবং এটা সম্পূর্ণভাবে তাদের কল্পনাতীত যে, এই শোচনীয় পরিবেশগত অবস্থার মধ্যে, আমার রাজ্য সম্পূর্ণভাবে মানুষের মধ্যে বাস্তবায়িত হয়েছে। সর্বোপরি, তারা যখন ক্ষমতার জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে এবং অন্যদের বিচার করতে যায়, তখন অন্যরা তাদের বিচার করে এবং তারা আমার ক্রোধে দগ্ধ হয়—কী দুঃখজনক! কী দুঃখজনক! মানুষের মধ্যে আমার রাজ্য বাস্তবায়িত হয়েছে—কী মহিমাময় এই ঘটনা!

মানুষ হয়ে (তা আমার রাজ্যের লোক হোক বা শয়তানের উত্তরসূরি), তোমাদের সকলকে আমার চমকপ্রদ কর্মগুলিকে চাক্ষুষ করতে হবে, অন্যথায় আমি এই বিষয়টিকে কখনোই ধামাচাপা দেব না। তুমি যদি আমার চমকপ্রদ কর্মসমূহ প্রত্যক্ষ না করে থাকো, তাহলে এমনকি, তুমি আমার বিচার গ্রহণে ইচ্ছুকও হলেও, সেটা কাজে লাগবে না। সমস্ত মানুষকে হৃদয়, বাক্য ও দৃষ্টির দ্বারা নিঃসংশয় হতে হবে, এবং কাউকেই সহজে ছেড়ে দেওয়া যাবে না। প্রতিটি মানুষকেই আমার প্রতি মহিমা প্রদান করতে হবে। অন্তিমে, আমি এমনকি অতিকায় লাল ড্রাগনকেও উত্থিত করব এবং আমার বিজয়ের জন্য তাকে দিয়ে আমার স্তুতি করাব। এ হল আমার প্রশাসনিক ফরমান—তোমরা কি তা মনে রাখবে? সমস্ত মানুষকে অন্তহীনভাবে আমার স্তুতি করতে হবে এবং আমায় মহিমা প্রদান করতে হবে!

পূর্ববর্তী: অধ্যায় ৮৮

পরবর্তী: অধ্যায় ৯১

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? শিখতে আমাদের ফেলোশিপে যোগ দিন। কোন ফি লাগবে না।👇

সম্পর্কিত তথ্য

রাজ্যের যুগই হল বাক্যের যুগ

রাজ্যের যুগে, যে পদ্ধতিতে তিনি কাজ করেন তা পরিবর্তনের উদ্দেশ্যে, এবং সমগ্র যুগের কাজ সম্পাদন করার জন্য, ঈশ্বর নতুন যুগের সূচনা করতে বাক্যের...

পরিশিষ্ট ১ ঈশ্বরের আবির্ভাব এক নতুন যুগের সূচনা করেছে

ঈশ্বরের ছয় হাজার বছরের পরিচালনামূলক পরিকল্পনা শেষ হতে চলেছে, এবং যারা তাঁর আবির্ভাবের পথ চেয়ে আছে তাদের সকলের জন্য স্বর্গের দ্বার ইতিমধ্যেই...

শুধুমাত্র অন্তিম সময়ের খ্রীষ্ট মানুষকে অনন্ত জীবনের পথ দেখাতে পারেন

জীবনের গতিপথ কারও নিয়ন্ত্রণে থাকে না, বা এটি সহজে অর্জন করতে পারার মতো বিষয়ও নয়। কারণ জীবন কেবল ঈশ্বর প্রদত্ত, অর্থাৎ, শুধুমাত্র ঈশ্বর...

সেটিংস

  • লেখা
  • থিমগুলি

ঘন রং

থিমগুলি

ফন্টগুলি

ফন্ট সাইজ

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

পৃষ্ঠার প্রস্থ

বিষয়বস্তু

অনুসন্ধান করুন

  • এই লেখাটি অনুসন্ধান করুন
  • এই বইটি অনুসন্ধান করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন