অধ্যায় ১৭

গির্জা হল নির্মীয়মান, এবং শয়তান এটি ধ্বংস করার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করছে। এটি যে কোনও সম্ভাব্য উপায়ে আমার নির্মাণ ভেঙ্গে ফেলতে চায়; এই কারণে, গির্জাকে দ্রুত বিশুদ্ধ করা আবশ্যক। অশুভ শক্তির সামান্যতম চিহ্নও থাকবে না; গির্জাকে এমনভাবে শুদ্ধ করতে হবে যাতে এটি ত্রুটিহীন হয়ে যায় এবং অতীতের মতোই বিশুদ্ধ থাকে। তোমাদের সর্বদা জাগ্রত থাকতে হবে এবং অপেক্ষা করতে হবে, এবং আমার কাছে আরও প্রার্থনা করতে হবে। শয়তানের বিভিন্ন ফন্দি এবং ধূর্ত ষড়যন্ত্র চিনতে হবে, আত্মাকে চিনতে হবে, মানুষকে জানতে হবে এবং সমস্ত ধরনের মানুষ, ঘটনা এবং জিনিসগুলি বুঝতে সক্ষম হতে হবে; অবশ্যই আমার বাক্যকে আরও বেশি করে ভোজন এবং পান করতে হবে এবং আরও গুরুত্বপূর্ণভাবে, তোমরা নিজেরাই সেগুলি ভোজন এবং পান করতে সক্ষম হবে। নিজেকে সমস্ত সত্য দিয়ে সজ্জিত করো, এবং আমার কাছে এসো যাতে আমি তোমাদের আধ্যাত্মিক দৃষ্টি উন্মুক্ত করতে পারি এবং তোমাদের আত্মার মধ্যে নিহিত থাকা সমস্ত রহস্য দেখতে অনুমোদন করতে পারি…। যখন গির্জা তার নির্মাণ পর্যায়ে প্রবেশ করে, তখন সন্তরা যুদ্ধের দিকে অগ্রসর হয়। শয়তানের বিভিন্ন ঘৃণ্য বৈশিষ্ট্য তোমাদের সামনে রাখা হয়েছে: তোমরা কি থামবে এবং পিছনের দিকে সরে যেতে থাকবে, নাকি তোমরা দাঁড়িয়ে পড়বে এবং আমার উপর নির্ভর করে, এগিয়ে যেতে থাকবে? শয়তানের কলুষিত এবং কুৎসিত বৈশিষ্ট্যগুলি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে প্রকাশ করো, কোনও অনুভূতিকেই ছাড়বে না, এবং করুণা করবে না! মৃত্যু পর্যন্ত শয়তানের সাথে লড়াই করো! আমি তোমার ভরসা, এবং তোমার অবশ্যই পুরুষ সন্তানের আত্মা থাকতে হবে! শয়তান এর চূড়ান্ত মৃত্যুবেদনায় আঘাত করে, কিন্তু এটি তবুও আমার বিচার এড়াতে অক্ষম হবে। শয়তান আমার পায়ের তলায় থাকে এবং এটিকে তোমাদের নিজের পায়ের নীচেও মাড়ানো হচ্ছে—এটি একটি বাস্তবতা!

সমস্ত ধর্মীয় বিঘ্নকারীদের, এবং যারা গির্জার নির্মাণকে ছিন্নভিন্ন করে, তাদের কাউকে সামান্যতম সহনশীলতা দেখানো যাবে না কিন্তু অবিলম্বে তাদের বিচার করা হবে; শয়তানকে উন্মোচিত করা হবে, পদদলিত করা হবে, সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করা হবে, এবং তার লুকোনোর জন্য কোনও জায়গা ছাড়া হবে না। সমস্ত রকমের রাক্ষস এবং ভূতপ্রেত অবশ্যই আমার কাছে তাদের আসল রূপ প্রকাশ করবে, এবং আমি তাদের সবাইকে অতল গহ্বরে নিক্ষেপ করব যেখান থেকে তারা কখনই মুক্ত হবে না; তারা সকলে আমাদের পায়ের নিচে থাকবে। যদি তুমি সত্যের জন্য ঠিক করে লড়াই করতে চাও, তাহলে প্রথমত, তুমি অবশ্যই শয়তানকে এই লক্ষ্যে কাজ করার কোনও সুযোগ দেবে না, তোমাকে স্থির মনের হতে হবে এবং সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে কাজ করতে হবে, নিজের সমস্ত ধারণা, মতামত, দৃষ্টিভঙ্গি, এবং কাজ করার উপায় ত্যাগ করো, আমার মধ্যে তোমার হৃদয় নিবেদন করো, পবিত্র আত্মার বাচ্যে মনোযোগ দাও, পবিত্র আত্মার কাজের প্রতি মনোযোগী হও, এবং ঈশ্বরের বাক্যগুলির বিশদ অভিজ্ঞতা লাভ করো। তোমার অবশ্যই একটাই অভিপ্রায় থাকতে হবে, যেটি হল আমার ইচ্ছা পূর্ণ করা হবে। এ ছাড়া তোমার অন্য কোনও উদ্দেশ্য থাকা উচিত নয়। তোমাকে অবশ্যই তোমার সমস্ত হৃদয় দিয়ে আমাকে দেখতে হবে, আমার ক্রিয়াকলাপ এবং আমি যেভাবে কাজ করি তা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করতে হবে এবং মোটেও অবহেলা করবে না। তোমার আত্মা স্পষ্ট হতে হবে, দৃষ্টি খোলা থাকতে হবে। সাধারণত, যাদের অভিপ্রায় ও উদ্দেশ্য ঠিক নয়, সেইসাথে যারা অন্যদের দেখাতে ভালোবাসে, যারা কিছু না কিছু করতেই থাকে, যারা বাধা সৃষ্টি করতে আগ্রহী, যারা ধর্মীয় মতবাদ নিয়ে বিতর্ক শুরু করে, যারা শয়তানের দালাল, এবং ইত্যাদি ইত্যাদি—এই মানুষেরা যখন একজোট হয়, তখন এরা গির্জার জন্য অসুবিধার কারণ হয়ে ওঠে এবং এর ফলে এদের ভাই ও বোনদের ঈশ্বরের বাক্য ভোজন ও পান করা ব্যর্থ হয়। তুমি যখন এই ধরনের লোকদের অভিনয় ক্রিয়ার মুখোমুখি হও, অবিলম্বে এদের থেকে দূরে সরে যাও। বারবার উপদেশ সত্ত্বেও যদি তারা না বদলায়, তাহলে তারা ক্ষতির সম্মুখীন হবে। যারা একগুঁয়েভাবে তাদের পথে অবিচল থাকে তারা যদি নিজেদের রক্ষা করার চেষ্টা করে এবং তাদের পাপ ঢাকতে চেষ্টা করে, গির্জার তাদের অবিলম্বে ছেটে ফেলা উচিত এবং তাদের কৌশল করার জন্য কোনও জায়গা ছেড়ে দেওয়া উচিত নয়। অল্প একটু বাঁচানোর চেষ্টা করে অনেক কিছু হারাবে না; বৃহত্‍ চিত্রের দিকে চোখ রাখো।

তোমার আধ্যাত্মিক দৃষ্টি এখন অবশ্যই উন্মুক্ত হবে, এবং গির্জার বিভিন্ন ধরনের লোককে চিনতে সক্ষম হবে:

কী ধরনের মানুষ আধ্যাত্মিক বিষয় বোঝে এবং আত্মাকে জানে?

কী ধরনের মানুষ আধ্যাত্মিক বিষয় বোঝে না?

কী ধরনের মানুষের একটি অশুভ আত্মা আছে?

কী ধরনের মানুষদের মধ্যে শয়তানের কাজ দেখা যায়?

কী ধরনের মানুষ ব্যাঘাত ঘটাতে পছন্দ করে?

কী ধরনের মানুষদের মধ্যে পবিত্র আত্মার কর্ম আছে?

কী ধরনের মানুষ ঈশ্বরের দেওয়া দায়িত্বের প্রতি বিবেচনা দেখায়?

কী ধরনের মানুষ আমার ইচ্ছা পূর্ণ করতে পারে?

আমার বিশ্বস্ত সাক্ষী কারা?

জেনে রেখো যে আজকের সর্বোচ্চ দর্শন হল সেই বোধোদয় যা পবিত্র আত্মা গির্জায় বহন করে আনে। এই সব জিনিস সম্পর্কে বিহ্বল হবে না; বরং, এইগুলিকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে সমাধান করার জন্য সময় নাও—এটি তোমাদের জীবনের অগ্রগতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ! তোমাদের চোখের সামনের জিনিসগুলি যদি তোমরা বুঝতে না পারো, তাহলে তোমরা এর সামনের পথ চলতে অক্ষম হবে; তোমরা ক্রমাগত প্রলোভনে পড়ার এবং বন্দী হওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে এবং তোমাদের গ্রাস করা হবে। এখন করণীয় প্রধান জিনিসগুলি হ'ল তোমার হৃদয়ে আমাকে আরও কাছে টেনে নেওয়া এবং আমার সাথে যোগাযোগ বাড়ানো। তোমার যা কিছুর অভাব বা চাহিদা আছে তা এইরূপ ঘনিষ্ঠতা এবং যোগাযোগের মাধ্যমে তোমার মধ্যে পূর্ণ হয়ে যাবে। তোমার জীবনে অবশ্যই প্রয়োজনীয় বস্তু প্রদান করা হবে, এবং তোমার নতুন বোধোদয় হবে। আমি কখনই দেখি না যে অতীতে তুমি কতটা অজ্ঞ ছিলে, কিংবা তোমদের অতীতের সীমালঙ্ঘনগুলি আমি আমার মনে দীর্ঘস্থায়ী করে রাখি না। আমি দেখি তুমি আমাকে কীভাবে ভালোবাসো: তুমি কি আমাকে অন্য কিছুর থেকে বেশি ভালোবাসতে পারো? আমি দেখি তুমি কি আমার কাছে ফিরে এসে তোমার অজ্ঞতা দূর করার জন্য আমার উপর নির্ভর করতে পারো। কিছু মানুষ আমার বিরোধিতা করে, আমাকে প্রকাশ্যে অস্বীকার করে এবং অন্যদের বিচার করে; তারা আমার বাক্য জানে না, এবং তাদের আমার চেহারা খুঁজে পাওয়ার সম্ভাবনাও কম। যারা আন্তরিকভাবে আমার কাছে এসে আমার অনুসন্ধান করে, যাদের হৃদয়ে ধার্মিকতার জন্য ক্ষুধা এবং তৃষ্ণা আছে—আমি তোমার বোধোদয় করব, তোমার কাছে প্রকাশিত হব, তোমাকে তোমার নিজের চোখে আমাকে দেখতে এবং ব্যক্তিগতভাবে আমাকে উপলব্ধি করতে অনুমতি দেব; আমার হৃদয় অবশ্যই তোমার কাছে প্রকাশিত হবে, যা তুমি বুঝতে পারবে। আমার বাক্য অনুসারে আমি তোমার মধ্যে যে বোধোদয় করি তা অবশ্যই তোমাকে অনুশীলন করতে হবে; অন্যথায়, তোমার বিচার হবে। আমার ইচ্ছা অনুসরণ করো, এবং তাহলে তুমি তোমার পথ হারাবে না।

যারা আমার বাক্য মানতে চায়, তাদের প্রতি করুণা ও আশীর্বাদ দ্বিগুণ হবে, তারা প্রতিদিন নতুন বোধোদয় ও অন্তর্দৃষ্টি লাভ করবে, এবং তারা প্রতিদিন আমার বাক্য ভোজন ও পান করে সতেজ বোধ করবে। তারা নিজেরাই এর স্বাদ নেবে: এটি কত মিষ্টি! … তোমাকে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে, এবং অন্তর্দৃষ্টি এবং মিষ্টির কিছুটা স্বাদ পেলে সন্তুষ্ট হয়ো না; চাবিকাঠি হল ক্রমাগত সামনে এগিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা! কিছু মানুষ মনে করে যে পবিত্র আত্মার কাজ সত্যিই আশ্চর্যজনক এবং বাস্তব-এরা প্রকৃতই সেই ব্যক্তি যারা সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের দ্বারা প্রকাশ্যে প্রকাশিত, এবং আরও বৃহত্‍ চিহ্ন এবং বিস্ময় এদের সামনে রয়েছে। সর্বদা সতর্ক এবং জাগ্রত থাকো, উৎসের দিকে দৃষ্টি স্থির রাখো, আমার সামনে শান্ত থাকো, মনোযোগ সহকারে শোনো এবং আমার বাক্য সম্পর্কে নিশ্চিত হও। এখানে কোনও অস্পষ্টতা থাকতে পারে না; যদি তুমি সন্দেহ করো, তাহলে আমার ভয় হয় যে তোমাকে গেটের বাইরে ফেলে দেওয়া হবে। সুস্পষ্ট দৃষ্টিভঙ্গি ধারণ করো, শক্ত জমির উপর দাঁড়াও, জীবনের এই স্রোতকে অনুসরণ করো, এবং যেখানেই এটি প্রবাহিত হোক না কেন খুব কাছে থেকে অনুসরণ করো; কোনও মানুষের দ্বিধা একেবারেই চেপে যাওয়া উচিত নয়। শুধু ভোজন করো, পান করো, প্রশংসা করো; একটি পবিত্র হৃদয়ের সাথে সন্ধান করো, এবং কখনও হাল ছেড়ো না। যা বুঝতে পারছো না তা প্রায়শই আমার সামনে নিয়ে এসো, এবং নিশ্চিতভাবে কোনও সন্দেহ পোষণ করো না, যাতে তুমি বৃহত্‍ ক্ষতি এড়াতে পারো। চালিয়ে যাও! এইভাবে চালিয়ে যাও! কাছে থাকো! তোমার প্রতিবন্ধকতা থেকে নিজেকে রক্ষা করো, এবং পশ্চাদপসরণ করো না। এগিয়ে যাও এবং আন্তরিকভাবে অনুসরণ করো এবং পিছু হটো না। তোমাকে অবশ্যই সর্বদা তোমার হৃদয় অর্পণ করতে হবে এবং কখনোই এক মুহূর্তকেও ভুলে যেও না। পবিত্র আত্মাকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কাজ করতে হয়, প্রতিদিন নতুন কিছু করে, এবং প্রতিদিন নতুন বোধোদয়ও হয়; পাহাড়েরও রূপান্তরও হয়, ঈশ্বরের পবিত্র আধ্যাত্মিক দেহ আবির্ভূত হয়েছে! ধার্মিকতার সূর্য অগ্রগতির আলো এবং উজ্জ্বলতা দেয়; সমস্ত জাতি এবং সমস্ত মানুষ তোমার মহিমান্বিত চেহারা দেখেছে। আমার আলো যারা আমার কাছে আসে তাদের উজ্জ্বল করবে। আমার বাক্যই হল আলো যা তোমাকে এগিয়ে নিয়ে যায়। তোমরা চলার পথে বাম বা ডান দিকে যাবে না, কিন্তু আমার আলোর মধ্য দিয়ে হাঁটবে এবং এই দৌড় নিষ্ফল পরিশ্রম হবে না। তুমি অবশ্যই পবিত্র আত্মার কাজ স্পষ্টভাবে দেখতে পাবে; এর মধ্যে আমার ইচ্ছা বিদ্যমান। সমস্ত রহস্য লুকিয়ে আছে, কিন্তু ধীরে ধীরে সেগুলি তোমার কাছে প্রকাশ হবে। সর্বদা আমার কথা মনে রাখো, এবং আমার সাথে আরও বেশি যোগাযোগ করতে আমার কাছে এসো। পবিত্র আত্মার কাজ অগ্রসর হয়। আমার পদচিহ্ন অনুসারে হাঁটো; সামনে মহান বিস্ময় বিদ্যমান, এবং এগুলি একে একে তোমার কাছে প্রকাশিত হবে। শুধুমাত্র তারাই এগুলি দেখতে পাবে যারা যত্ন নেয়, যারা অপেক্ষা করে এবং যারা জেগে থাকে। শিথিল না হওয়া নিশ্চিত করো। ঈশ্বরের ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনা চূড়ান্ত পর্যায়ে উপনীত হয়েছে; গির্জার নির্মাণ সফল হবে, বিজয়ীদের সংখ্যা ইতিমধ্যেই স্থির করা হয়েছে, বিজয়ী পুরুষ সন্তান তৈরি হবে, এবং তারা আমার সাথে সাম্রাজ্যে প্রবেশ করবে, আমার সাথে রাজত্ব গ্রহণ করবে, লৌহদন্ড নিয়ে সমস্ত জাতিকে শাসন করবে এবং একত্রে মহিমান্বিত হবে!

পূর্ববর্তী: অধ্যায় ১৫

পরবর্তী: অধ্যায় ২০

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? শিখতে আমাদের ফেলোশিপে যোগ দিন। কোন ফি লাগবে না।👇

সম্পর্কিত তথ্য

একটি সাধারণ আধ্যাত্মিক জীবন মানুষকে সঠিক পথে নিয়ে যায়

তোমরা ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাসের পথে খুব সামান্য অংশই হেঁটেছো, এবং তোমরা এখনও সঠিক পথে প্রবেশ করতে পারোনি, তাই তোমরা এখনও ঈশ্বরের নির্ধারিত...

রাজ্যের যুগই হল বাক্যের যুগ

রাজ্যের যুগে, যে পদ্ধতিতে তিনি কাজ করেন তা পরিবর্তনের উদ্দেশ্যে, এবং সমগ্র যুগের কাজ সম্পাদন করার জন্য, ঈশ্বর নতুন যুগের সূচনা করতে বাক্যের...

সর্বশক্তিমানের দীর্ঘশ্বাস

তোমার হৃদয়ে এক বিশাল গোপন বিষয় আছে যার ব্যাপারে তুমি কখনও সচেতন ছিলে না, কারণ তুমি বেঁচে আছ আলোকহীন এক জগতে। তোমার হৃদয় আর তোমার আত্মাকে...

সেটিংস

  • লেখা
  • থিমগুলি

ঘন রং

থিমগুলি

ফন্টগুলি

ফন্ট সাইজ

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

পৃষ্ঠার প্রস্থ

বিষয়বস্তু

অনুসন্ধান করুন

  • এই লেখাটি অনুসন্ধান করুন
  • এই বইটি অনুসন্ধান করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন