অধ্যায় ৪০

তোমরা এত অবোধ কেন? কেন তোমরা এত অসাড়? বেশ কয়েকবারের সতর্কবার্তাও তোমাদের জাগ্রত করেনি, এবং এটা আমার কাছে পীড়াদায়ক। আমার পুত্রদের এইরূপ দেখার হৃদয় বাসনা আমার সত্যিই নেই। আমার হৃদয় কী করে এটা সহ্য করতে পারে? আহ্‌! নিজের হাতে তোমাদের শিক্ষা দিতে হবে। আমার গতি আরো দ্রুত হচ্ছে। আমার পুত্রগণ! দ্রুত উঠে দাঁড়াও এবং আমার সঙ্গে সহযোগিতা করো। কারা এখন আন্তরিকভাবে নিজেদের আমার জন্য ব্যয় করে? কারা একটা অভিযোগমূলক শব্দ না-করে নিজেদের সম্পূর্ণভাবে উৎসর্গ করতে সক্ষম? তোমরা সর্বদাই এত অসাড় এবং নির্বোধ! কতজন আমার অনুভূতির প্রতি বিবেচনাশীল হতে সক্ষম, এবং কে প্রকৃতপক্ষেই আমার বাক্যগুলির অন্তরাত্মাকে উপলব্ধি করতে পারে? আমি শুধুই উদ্বিগ্ন হয়ে অপেক্ষা ও আশা করতে পারি; এমনটা দেখে চলি যে তোমাদের প্রতিটি পদক্ষেপ আমার হৃদয়কে তৃপ্ত করতে পারছে না, কী-ই বা আর আমি বলতে পারি? আমার পুত্রগণ! তোমাদের পিতা আজ যা কিছু করতে পারে তা সবই তাঁর পুত্রদের জন্য। আমার পুত্ররা কখনোই কেন আমার হৃদয়কে উপলব্ধি করতে পারে না, এবং কেন আমার পুত্ররা সর্বদা আমাকে, তোমাদের পিতাকে, চিন্তিত করে তোলো? কবে আমার পুত্ররা বিকাশ লাভ করবে, আমাকে আর উদ্বেগের অবকাশ দেবে না, এবং তাদের সম্বন্ধে নিশ্চিন্ত থাকতে দেবে? কবে আমার পুত্ররা স্বাধীনভাবে জীবনযাপন করতে, উঠে দাঁড়াতে, এবং তাদের পিতার স্কন্ধের ভার লাঘব করতে সক্ষম হবে? আমি শুধু আমার পুত্রদের জন্য নীরবে অশ্রুপাত করি, এবং ঈশ্বরের পরিচালনামূলক পরিকল্পনা সম্পন্ন করা ও আমার পুত্রগণ, আমার প্রিয়জনদের উদ্ধার করার জন্য আমি সবকিছু অর্পন করি। আমার অন্য কোনো পথ নেই।

আমার প্রতিশ্রুতিসমূহ সংঘটিত হতে চলেছে এবং তা তোমাদের চোখের সামনে প্রতীয়মান। তোমরা কেন আমার হৃদয়ের প্রতি বিবেচনাশীল হতে পারো না? কেন? কেন? এখনো পর্যন্ত, তোমরা কি গণনা করেছ যে, তোমাদের করা কতগুলি কাজ আমার হৃদয়কে তৃপ্ত করেছে, এবং এমন কী কী কাজ তোমরা করেছ যা গির্জাকে পরিপুষ্ট এবং প্রতিপালিত করেছে? সযত্নে এটা বিবেচনা করে দেখো; অমনোযোগী হয়ো না। সত্যের কণামাত্রকেও হারিয়ে যেতে দিয়ো না। তুমি কেবলমাত্র বহিরাঙ্গের উপর গুরুত্ব দিয়ে সারসত্যকে উপেক্ষা করে যেতে পারো না। সর্বদাই তোমাদের পরীক্ষা করে দেখতে হবে যে তোমাদের প্রতিটি কথা ও কাজ এবং তোমাদের প্রতিটি পদক্ষেপ খ্রীষ্টের আসনের সম্মুখে বিচারের মধ্যে দিয়ে গিয়েছে কিনা, এবং তুমি একজন নতুন ব্যক্তি হিসাবে রূপান্তরিত হয়েছ কিনা—যা অনুকরণ নয় নয়, বরং জীবনের অভিব্যক্তির গভীর থেকে উৎসারিত। জীবনকে বিলম্বিত কোরো না, যাতে তুমি ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে পারো। তৎপর হও এবং এই অবস্থার প্রতিকার করো, আমার হৃদয়কে তৃপ্ত করো, এবং আচরণের নীতিগুলিকে মনে রাখো: ন্যায়পরায়ণতা এবং ন্যায্যতার সঙ্গে কাজ করো, এবং আমার হৃদয়কে তৃপ্ত করো। বেপরোয়া হয়ো না। এমনটা কি মনে রাখতে পারবে?

পূর্ববর্তী: অধ্যায় ৩৬

পরবর্তী: অধ্যায় ৪১

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? শিখতে আমাদের ফেলোশিপে যোগ দিন। কোন ফি লাগবে না।👇

সম্পর্কিত তথ্য

পরিশিষ্ট ১: ঈশ্বরের আবির্ভাব এক নতুন যুগের সূচনা করেছে

ঈশ্বরের ছয় হাজার বছরের পরিচালনামূলক পরিকল্পনা শেষ হতে চলেছে, এবং যারা তাঁর আবির্ভাবের পথ চেয়ে আছে তাদের সকলের জন্য স্বর্গের দ্বার ইতিমধ্যেই...

একটি সাধারণ আধ্যাত্মিক জীবন মানুষকে সঠিক পথে নিয়ে যায়

তোমরা ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাসের পথে খুব সামান্য অংশই হেঁটেছো, এবং তোমরা এখনও সঠিক পথে প্রবেশ করতে পারোনি, তাই তোমরা এখনও ঈশ্বরের নির্ধারিত...

সেটিংস

  • লেখা
  • থিমগুলি

ঘন রং

থিমগুলি

ফন্টগুলি

ফন্ট সাইজ

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

পৃষ্ঠার প্রস্থ

বিষয়বস্তু

অনুসন্ধান করুন

  • এই লেখাটি অনুসন্ধান করুন
  • এই বইটি অনুসন্ধান করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন