অধ্যায় ১২

তুমি যদি অস্থির স্বভাবের হও, বাতাস ও বৃষ্টির মতো একবার একদিকে আর অন্যবার অন্য দিকে বয়ে যাও, এবং যদি নিজের সর্বস্ব শক্তি প্রয়োগ করে সম্মুখে অগ্রসর হতে অক্ষম হও, তাহলে আমার দণ্ড কখনোই তোমার থেকে দূরে থাকবে না। যখন তোমার মোকাবিলা করা হয়, তখন পরিবেশ যতই বেশি প্রতিকূল হোক এবং তুমি যতই বেশি নিগৃহীত হও, ততই ঈশ্বরের প্রতি তোমার ভালবাসা ততই বৃদ্ধি পাবে এবং তুমি এই পার্থিব জগতকে আঁকড়ে ধরে রাখা থেকে বিরত থাকবে। অগ্রসর হওয়ার জন্য কোনও বিকল্প পথ না থাকায়, তুমি আমার কাছে আসবে এবং নিজের শক্তি ও আত্মবিশ্বাস ফিরে পাবে। তবে, অনুকূলতর পরিবেশে, তুমি বিশৃঙ্খল ভাবে অগ্রসর হবে। তোমাকে অবশ্যই ইতিবাচক দিক থেকে প্রবেশ করতে হবে, সক্রিয় হয়ে থাকতে হবে, নিষ্ক্রিয় নয়। তোমায় আবশ্যিকভাবে কোনও ব্যক্তি বা বস্তুর দ্বারা, অথবা কোনও পরিস্থিতিতেই বিচলিত হলে চলবে না এবং আবশ্যিকভাবেই তোমায় অন্যের কথার দ্বারা প্রভাবিত হলে চলবে না। তোমার অবশ্যই সুস্থির স্বভাব থাকতে হবে; লোকে যাই বলুক না কেন, যা তুমি সত্য বলে বিশ্বাস কর, তোমায় অবশ্যই অবিলম্বে তা অনুশীলন করবে। তুমি যারই সম্মুখীন হও না কেন, তোমার অন্তরে যেন সর্বক্ষণ আমার বাক্যগুলি কার্যরত থাকে; তোমায় আমার প্রতি সাক্ষ্যে তোমাকে অবশ্যই দৃঢ় হয়ে দাঁড়াতে সক্ষম হতে হবে এবং আমার দায়ভারের প্রতি বিবেচনা প্রদর্শন করতে হবে। তোমায় অবশ্যই নিজে বিচার-বিবেচনা না করে অন্যদের ধারণার সাথে অন্ধ ভাবে সম্মত হলে চলবে না; বরং, যে সকল বস্তু সত্যের অনুবর্তী নয় তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে দাঁড়ানোর সাহস তোমায় অবশ্যই রাখতে হবে। যদি কোনও একটি বিষয়কে স্পষ্টতই ভুল বলে জানো এবং তবুও তা উন্মোচনের সাহস তোমার না থাকে, তাহলে তুমি সত্য অনুশীলনকারী ব্যক্তি নও। তুমি কিছু বলতে চেয়েও সরাসরি তা বলার সাহসের অভাবে মূল বক্তব্যটি রাখার বদলে অবান্তর কথা বলে যাও এবং তারপর প্রসঙ্গান্তরে চলে যেতে চাও; শয়তান তোমার ভিতর থেকে তোমায় আটকে রেখেছে, যার ফলে তোমার বলা কথার কোনও প্রভাব থাকছে না এবং শেষ পর্যন্ত অধ্যবসায় বজায় রাখতে অক্ষম রয়ে যাও। তোমার হৃদয়ে এখনো ভয় রয়েছে, এবং, এর কারণ কি এই নয় যে তোমার মন এখনও শয়তানের ধারণাগুলিতে পূর্ণ হয়ে আছে?

জয়ী কে? খ্রীষ্টের সু-সৈন্যদের অবশ্যই নির্ভীক হতে হবে, এবং আধ্যাত্মিক ভাবে শক্তিশালী হওয়ার জন্য তারা আমার উপরে নির্ভর করবে; যোদ্ধা হওয়ার উদ্দেশ্যে তাদের অবশ্যই লড়াই করতে হবে এবং আমৃত্যু শয়তানের সাথে সংগ্রাম করে যেতে হবে। তোমায় অবশ্যই সদা জাগ্রত থাকতে হবে, এবং সেই কারণেই আমি তোমাকে প্রতিটি মুহূর্তে আমার সাথে সক্রিয় সহযোগিতা করে যাওয়ার জন্য এবং আমার আরো কাছে আসার জন্য বলে থাকি। যদি যেকোনো সময়ে এবং যেকোনো পরিস্থিতিতে তুমি আমার সম্মুখে থেকে নীরবে আমার ভাষণ শোনো এবং আমার বাক্য ও আমার ক্রিয়াগুলির প্রতি মনোযোগ দাও, তাহলে তুমি দোলাচলে থাকবে না এবং নিজের স্থান হারাবে না। আমার অন্তরের যা কিছু তুমি গ্রহণ করবে, তা-ই অনুশীলনীয়। আমার প্রতিটি বাক্য তোমার অবস্থার প্রতি নির্দেশিত, এবং সেগুলি তোমার হৃদয়কে বিদ্ধ করে। তুমি সেইগুলিকে হয়তো মৌখিক ভাবে অস্বীকার করতে পারো, কিন্তু তুমি সেগুলিকে অন্তর থেকে প্রত্যাখ্যান করতে পারো না। উপরন্তু, তুমি যদি আমার বাক্যগুলির বিশ্লেষণ কর, তাহলে তোমার বিচার করা হবে। অর্থাৎ, আমার বাক্যগুলি হ’ল সত্য, জীবন এবং পথ; সেগুলি শানিত, দুইপাশে ধারওয়ালা তলোয়ারের মতো, এবং সেগুলি শয়তানকে পরাজিত করতে সক্ষম। যারা আমার বাক্যগুলি উপলব্ধি করে এবং অনুশীলনের পথে যায় তারা আশীর্বাদপ্রাপ্ত, এবং যারা সেগুলির অনুশীলন করে না, নিঃসন্দেহে তাদের বিচার করা হবে; এটি এতোই বাস্তবসম্মত। বর্তমানে, আমি যাদের বিচার করি তাদের ব্যপ্তি প্রশস্ততর হয়েছে: আমার সম্মুখে যে কেবলমাত্র যারা আমাকে জানে তাদেরই বিচার হবে, এমন নয়, বরং যারা আমাকে বিশ্বাস করে না এবং যারা পবিত্র আত্মার কাজকে প্রতিহত ও বিঘ্নিত করার উদ্দেশ্যে সর্বাত্মক চেষ্টা করে চলে, তাদেরও বিচার করা হবে। আমার সম্মুখে যারা রয়েছে, যারা আমার পদাঙ্ক অনুসরণ করে চলেছে, তারা সবাই প্রত্যক্ষ করবে যে ঈশ্বর হলেন একটি জ্বলন্ত অগ্নি! ঈশ্বর হলেন মহিমা-স্বরূপ! তিনি তাঁর রায়গুলিকে কার্যকর করছেন এবং তাদের মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করছেন। গির্জায় যারা পবিত্র আত্মার কাজ অনুসরণ করার প্রতি কোনও মনোযোগ দেয় না, যারা সেই কাজে বাধাদান করে, যারা নিজেদের জাহির করে, যাদের উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য সঠিক নয়, যারা ঈশ্বরের বাক্য ভোজন ও পান করার চেষ্টা করে না, যারা ছন্নমতি ও সন্দেহপ্রবণ, যারা পবিত্র আত্মার কাজগুলি খুঁটিয়ে দেখতে চায়—বিচারের বাক্য যেকোনো সময়ে এই ব্যক্তিদের উপর আছড়ে পড়বে। মানুষের সমস্ত কাজ অনাবৃত হবে। পবিত্র আত্মা মানুষের হৃদয়ের অন্তঃস্থল অনুসন্ধান করেন, অতএব অমনোযোগী হয়ো না; সাবধান ও সতর্ক থাক। নিজে নিজে অন্ধের মতো কাজ করে যেও না। যদি তোমার কাজ আমার বাক্যের অনুবর্তী না হয়, তাহলে তোমার বিচার করা হবে। অনুকরণ করলে, আড়ম্বরপূর্ণ হলে অথবে প্রকৃতপক্ষেই উপলব্ধি না করলে চলবে না; তোমায় অবশ্যই আমার কাছে আসতে হবে এবং ঘনঘন আমার সাথে যোগাযোগ করে যেতে হবে।

আমার ভিতর থেকে তুমি যা কিছু গ্রহণ কর তা তোমায় অনুশীলনের পথ দেখায়। তোমার সাথে থাকবে আমার শক্তি, আমার উপস্থিতি এবং সর্বদা আমার বাক্য অনুযায়ী চলবে; তুমি জাগতিক সমস্ত বিষয়গুলি অতিক্রম করবে এবং পুনরুত্থানের ক্ষমতার অধিকারী হবে। তোমার কথাবার্তায়, আচরণে এবং ক্রিয়াকলাপে যদি আমার বাক্য এবং আমার উপস্থিতি না থাকে, এবং তুমি যদি আমার সাথে দূরত্ব সৃষ্টি করো এবং নিজের মধ্যেই আবদ্ধ থাকো, নিজের মনের বিশ্বাস, মতবাদ ও নিয়মের ভিতরেই বাস করো, তাহলে প্রমাণিত হবে যে তুমি নিজের মনকে পাপের প্রতি নিবেদন করেছো। অন্য ভাবে বলা যায় যে, তুমি তোমার পুরানো অস্মিতা ধরে রেখেছো, অন্যদের তুমি তোমার অস্মিতার অথবা তোমার আত্মার সামান্যতম ক্ষতি করারও কোনও সুযোগ দাও না। যে ব্যক্তিরা এমন করে তারা অত্যন্ত দুর্বল গুণমান-সম্পন্ন এবং বেশ অনেকটাই যৌক্তিকতাবিহীন, এবং তারা ঈশ্বরের অনুগ্রহ দেখতে পায় না বা তাঁর আশীর্বাদ চিনতে পারে না। তুমি যদি অবিরত ভাবে এই রকমের ছলচাতুরীপূর্ণ আচরণ করে চলো, তাহলে কখন আমায় তোমার অন্তরে কর্ম করতে দিতে সক্ষম হবে? আমার কথা বলা সমাপ্ত হলে, তুমি যদি সেগুলি শোনা সত্ত্বেও কিছুই মনে না রাখো, এবং তোমার সমস্যাগুলি বাস্তবে দেখিয়ে দেওয়ামাত্র তুমি সবিশেষভাবে দুর্বল হয়ে পড়ো, তাহলে তা কী ধরনের আত্মিক উচ্চতা? তোমাকে যদি সর্বদাই তোষামোদ করতে হয়, তাহলে কখন আমি তোমায় সম্পূর্ণ করে তুলব? তুমি যদি পথের অসমতলতার কারণে ভীত হও, তাহলে অন্যদের সতর্ক করার জন্য তোমার ছুটে যাওয়া উচিৎ, “আমি কাউকে আমায় মোকাবিলা দেবো না; আমি আমার স্বাভাবিক, পুরানো স্বভাব নিজে নিজেই পরিত্যাগ করতে পারি।” এইভাবে, কেউ তোমার সমালোচনা করবে না অথবা তোমায় স্পর্শ করবে না, এবং তুমি স্বাধীন ভাবে নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী বিশ্বাস করতে পারো, কেউ তোমার বিষয়ে চিন্তা করবে না। তুমি কি এইভাবে আমার পদাঙ্ক অনুসরণ করতে পারো? তোমার এই দাবী, যে, আমিই তোমার ঈশ্বর, এবং তোমার প্রভু তুমি নিশ্চিত, তা শূন্যগর্ভ কথা ছাড়া আর কিছুই নয়। তোমার মনে সত্যিই যদি কোনও দ্বিধা না থাকত, তাহলে এইগুলি কোনও সমস্যার বিষয়ই হত না, এবং তুমি বিশ্বাস করতে যে এ হল ঈশ্বরের ভালোবাসা ও আশীর্বাদ, যা তোমার প্রতি বর্ষিত হয়েছে। আমি যখন কথা বলি, তখন সেগুলি বলি আমার পুত্রগণের উদ্দেশ্যে, এবং আমার বাক্যগুলিকে ধন্যবাদ ও প্রশংসার মাধ্যমে গ্রহণ করতে হবে।

পূর্ববর্তী: অধ্যায় ৮

পরবর্তী: অধ্যায় ১৩

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? শিখতে আমাদের ফেলোশিপে যোগ দিন। কোন ফি লাগবে না।👇

সম্পর্কিত তথ্য

একটি সাধারণ আধ্যাত্মিক জীবন মানুষকে সঠিক পথে নিয়ে যায়

তোমরা ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাসের পথে খুব সামান্য অংশই হেঁটেছো, এবং তোমরা এখনও সঠিক পথে প্রবেশ করতে পারোনি, তাই তোমরা এখনও ঈশ্বরের নির্ধারিত...

শুধুমাত্র অন্তিম সময়ের খ্রীষ্ট মানুষকে অনন্ত জীবনের পথ দেখাতে পারেন

জীবনের গতিপথ কারও নিয়ন্ত্রণে থাকে না, বা এটি সহজে অর্জন করতে পারার মতো বিষয়ও নয়। কারণ জীবন কেবল ঈশ্বর প্রদত্ত, অর্থাৎ, শুধুমাত্র ঈশ্বর...

সেটিংস

  • লেখা
  • থিমগুলি

ঘন রং

থিমগুলি

ফন্টগুলি

ফন্ট সাইজ

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

পৃষ্ঠার প্রস্থ

বিষয়বস্তু

অনুসন্ধান করুন

  • এই লেখাটি অনুসন্ধান করুন
  • এই বইটি অনুসন্ধান করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন