আনন্দ কর, হে সকল মানুষ!

আমার আলোকে মানুষ আবার আলোক দর্শন করে। আমার বাক্যে, মানুষ সেই জিনিসগুলি খুঁজে পায় যা তারা উপভোগ করে। আমি প্রাচ্য থেকে এসেছি, আমার উৎপত্তি প্রাচ্যে। যখন আমার গৌরব সমুখপানে উজ্জ্বল হয়ে ওঠে, সমস্ত জাতি আলোকিত হয়, সকলে আলোকে আনিত হয়, একটি বস্তুও আর অন্ধকারে থাকে না। রাজ্যে, ঈশ্বরের মানুষেরা ঈশ্বরের সঙ্গে যে জীবনযাপন করে তা অত্যন্ত আনন্দময়। জলরাশি মানুষের আশির্বাদধন্য জীবনে আনন্দে নৃত্য করে, পর্বতরাজি মানুষের সঙ্গে উপভোগ করে আমার প্রাচুর্য। সব মানুষ চেষ্টা করছে, কঠোর পরিশ্রম করছে, আমার রাজ্যে তাদের আনুগত্য দেখাচ্ছে। রাজ্যে বিদ্রোহ আর নেই, প্রতিরোধও নেই; স্বর্গ এবং পৃথিবী একে অপরের উপর নির্ভর করে, মানুষ এবং আমি গভীর অনুভূতিতে কাছাকাছি আসি, জীবনের মধুর সুখের মাধ্যমে, একে অপরের প্রতি ঝুঁকে পড়ি…। এই সময়ে, আমি আনুষ্ঠানিকভাবে স্বর্গে আমার জীবন শুরু করি। শয়তানের উপদ্রব আর থাকে না, এবং মানুষ বিশ্রামে প্রবেশ করে। মহাবিশ্ব জুড়ে, আমার নির্বাচিত অতুলনীয় ভাবে আশির্বাদধন্য মানুষেরা আমার গৌরবের মধ্যে বাস করে, মানুষের মধ্যে বসবাসকারী মানুষ হিসাবে নয়, বরং ঈশ্বরের সাথে বসবাসকারী মানুষ হিসাবে। সমস্ত মানবতাই শয়তানের কলুষতার মধ্য দিয়ে গিয়েছে, এবং একেবারে তলানি পর্যন্ত জীবনের তিক্ততা ও মধুরতা পান করেছে। এখন, আমার আলোতে বাস করে, কীভাবে কেউ আনন্দ করতে পারে না? কীভাবে কেউ উদাসীনভাবে এই সুন্দর মুহূর্তটি ভুলে যেতে পারে এবং এটিকে ফসকে যেতে দিতে পারে? হে মানুষ! নিজের অন্তরে গান গাও এবং আমার জন্য আনন্দে নৃত্য কর! আপনার আন্তরিক হৃদয়গুলি উত্তোলিত কর এবং আমার কাছে সেগুলি সমর্পন কর! নিজেদের ঢাক বাজাও এবং আমার জন্য আনন্দে বাজাও! আমি সমস্ত ব্রহ্মাণ্ড জুড়ে আমার আনন্দ বিকিরণ করি! মানুষের কাছে প্রকাশ করি আমার মহিমান্বিত মুখ! আমি উচ্চস্বরে ডাকব! আমি ব্রহ্মাণ্ড অতিক্রম করব! আমি ইতিমধ্যেই মানুষের মাঝে রাজত্ব করছি! আমি মানুষের দ্বারা মহিমান্বিত! আমি উপরে নীল আকাশে ভাসমান থাকি এবং মানুষ আমার সঙ্গে হাঁটতে থাকে। আমি মানুষের মাঝে হাঁটি এবং আমার মানুষেরা আমাকে ঘিরে থাকে! মানুষের হৃদয় উৎফুল্ল, তাদের সঙ্গীত ব্রহ্মাণ্ডকে কাঁপিয়ে দেয়, চিড়ে দেয় ঊর্ধ্বতম স্বর্গকে! মহাবিশ্ব আর কুয়াশায় আবৃত নেই; সেখানে আর কর্দম নেই, আর পাঁক জমা নেই। ব্রহ্মাণ্ডের পবিত্র মানুষ! আমার নিরীক্ষণের অধীনে তুমি তোমার আসল চেহারা দেখাও। তুমি কলুষ-লিপ্ত মানুষ নও, কিন্তু জেড পাথরের মতো শুদ্ধ সন্ত, তুমিই আমার প্রিয়, তুমিই আমার আনন্দ! সব কিছুতে প্রাণ ফিরে আসে! সন্তরা সকলেই স্বর্গে আমার সেবা করতে ফিরে এসেছে, আমার উষ্ণ আলিঙ্গনে প্রবেশ করছে, আর ক্রন্দনরত নয়, আর উদ্বিগ্ন নয়, আমার কাছে নিজেকে উৎসর্গ করছে, ফিরে আসছে আমার গৃহে, এবং তাদের স্বভূমিতে তারা আমাকে অবিরাম ভালবাসবে! সকল অনন্তকাল জুড়ে কোনো পরিবর্তন নয়! দুঃখ কোথায়! অশ্রু কোথায়! দেহ কোথায়! পৃথিবী লোপ পায়, কিন্তু স্বর্গ চিরন্তন। আমি সমস্ত মানুষের কাছে আবির্ভূত হই, এবং সমস্ত মানুষ আমার প্রশংসা করে। এই জীবন, এই সৌন্দর্য, অনাদিকাল থেকে অন্তিম সময় পর্যন্ত, পরিবর্তিত হবে না। এই হল রাজত্বের জীবন।

পূর্ববর্তী: অধ্যায় ১০৮

পরবর্তী: অধ্যায় ২৬

প্রতিদিন আমাদের কাছে 24 ঘণ্টা বা 1440 মিনিট সময় থাকে। আপনি কি ঈশ্বরের সান্নিধ্য লাভের জন্য তাঁর বাক্য শিখতে 10 মিনিট সময় দিতে ইচ্ছুক? অনুগ্রহ করে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। 😊

সম্পর্কিত তথ্য

সেটিংস

  • লেখা
  • থিমগুলি

ঘন রং

থিমগুলি

ফন্টগুলি

ফন্ট সাইজ

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

লাইনের মধ্যে ব্যবধান

পৃষ্ঠার প্রস্থ

বিষয়বস্তু

অনুসন্ধান করুন

  • এই লেখাটি অনুসন্ধান করুন
  • এই বইটি অনুসন্ধান করুন

Messenger-এর মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন